IND v ENG 3rd Test Match: দুপুর আড়াইটেয় শুরু ম্যাচ, মোতেরা স্টেডিয়ামের উদ্বোধন করবেন রাষ্ট্রপতি

 

IND v ENG 3rd Test Match: আজ আমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়ামে শুরু ভারত ও ইংল্যান্ডের চলতি সিরিজের তৃতীয় টেস্ট। দিন-রাতের এই টেস্ট দুপুর আড়াইটে থেকে শুরু হবে। আজ স্টেডিয়ামের উদ্বোধন করবেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। উপস্থিত থাকবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সহ বিসিসিআই-এর আধিকারিকরা।
বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে জায়গা পাকা করার লক্ষ্যে এই টেস্টে খেলতে নামবে টিম ইন্ডিয়া। চেন্নাইয়ে সিরিজের প্রথম টেস্টে ভারতকে হারিয়ে দিয়েছিল ইংল্যান্ড। চেন্নাইতেই দ্বিতীয় টেস্টে ইংল্যান্ডকে বিরাট ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজে সমতা ফেরায় ভারত। 

ভারত এখনও পর্যন্ত গোলাপি বলে মাত্র দুটি টেস্ট খেলেছে। গত বছর অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে অ্যাডিলেডে দিন-রাতের টেস্ট খেলেছিল ভারত। কিন্তু ওই ম্যাচে হারতে হয়েছিল বিরাট কোহলির দলকে। দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৩৬ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল ভারতের ইনিংস। টেস্টের ইতিহাসে এটাই সবচেয়ে কম রানের ইনিংস। ইংল্যান্ড গোলাপি বলে শেষ টেস্ট খেলেছিল ২০১৮-তে। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে অকল্যান্ডে এই টেস্ট হয়েছিল। ভারত তাদের প্রথম দিন-রাতের টেস্ট খেলেছিল ২০১৯-এর নভেম্বরে কলকাতার ইডেন গার্ডেনে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। 
যেহেতু টেস্ট দিন-রাতের। তাই ভারত তিন স্পিনার নিয়ে খেলার রণকৌশল বদলাতে পারে।  চেন্নাইয়ে সিরিজের আগের দুটি টেস্টে তিন স্পিনার নিয়ে নেমেছিল ভারত। এখনও পর্যন্ত দিন-রাতের টেস্টে বেশিরভাগ উইকেট পেসারদের দখলে গিয়েছে। ভারতের পক্ষে স্বস্তির খবর পেসার উমেশ যাদব ফিটনেস টেস্টে পাস করেছেন এবং সিরিজের বাকি দুটি টেস্টে খেলার জন্য ফিট ঘোষিত হয়েছেন। 
এরইমধ্যে কেরিয়ারের শততম টেস্ট খেলতে প্রস্তুত ভারতের পেসার ইশান্ত শর্মা। 
ভারতের ওপেনার রোহিত শর্মা অবশ্য মনে করছেন, পিচ স্পিনারদের সহায়ক হবে এবং দ্বিতীয় টেস্টের মতোই এই পিচ। 
ইংল্যান্ড তৃতীয় টেস্টে জোফরা আর্চার ও জেমস আন্ডারসনকে প্রথম একাদশে রাখতে পারে। তাঁরা দ্বিতীয় টেস্টে খেলেননি। আন্ডারসনকে দলের রোটেশন নীতির কারণে প্রথম একাদশের বাইরে রাখা হয়েছিল। অন্যদিকে, চোট পাওয়ায় দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে পারেননি আর্চার। 
ইংল্যান্ডের ব্যাটিংয়ের হাল ফের  অধিনায়ক জ রুট ও বেন স্টোকসের কাঁধেই থাকবে। তবে জনি বেয়ারস্টো ফেরায় দলের ব্যাটিং অর্ডার আরও কিছুটা মজবুত হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। 
হার এড়াতে ভারতীয় দল কোনও ঝুঁকি নেবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। আগামী দুটি টেস্টের কোনও একটিতে হারলে ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে পৌঁছনোর রাস্তা ভারতের সামনে কঠিন হয়ে উঠতে পারে। ফাইনালে পৌঁছতে আগামী দুটি টেস্টে জয় ও সিরিজ দখলের প্রয়োজন ভারতের।  
মোতেরা স্টেডিয়াম সম্পর্কে কিছু তথ্য-
মোতেরা বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্টেডিয়াম। এতে রয়েছে ১.১০ লক্ষ দর্শকাসন।
৬৩ একর জায়গা জুড়ে এই ক্রিকেট স্টেডিয়াম। রয়েছে চারটিড ড্রেসিংরুম, তিন প্রাকটিশ গ্রাউন্ড। 
রয়েছে ইনডোর ও আউডোর-উভয় ট্রেনিংয়ের সুবিধা
এখানে নিকাশি ব্যবস্থা খুবই অত্যাধুনিক। বৃষ্টি বন্ধ হওয়ার আধ ঘণ্টার মধ্যে ম্যাচ শুরু করা যেতে পারে।
দেশের প্রথম স্টেডিয়াম, যেখানে বিশেষ ধরনের এলইডি লাইট লাগানো হয়েছে। 

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *