Nusrat Victory Tattoo: নুসরতের ‘জয়’

কলকাতা: পরনে কালো অফ শোলডার টপ, চোখে রোদচশমা। আনমনা হয়ে দাঁড়িয়ে আছেন নায়িকা। নুসরত জাহান। কিন্তু ছবির ক্যাপশন বা পোশাক নয়, নজর কাড়ছে তাঁর ট্যাটু।

বুকের বাঁদিকে জ্বলজ্বল করছে সাত অক্ষরের ইংরাজি শব্দ। ভিকট্রি। সঙ্গে ক্যাপশান ‘আলফা মিমেলস ডোন্ট রান ইন প্যাকস’। অর্থাৎ শক্তিশালী মহিলারা স্রোতের বিপরীতে হাঁটে।

একদিকে বিবাহিত সম্পর্কে টানাপোড়েন, অন্যদিকে নতুন সম্পর্কের গুঞ্জন। সেইসঙ্গে রয়েছে তাঁর রাজনৈতিক ও রূপোলি পর্দার কেরিয়ার। সবসময়ই লাইমলাইটে থাকেন নুসরত। তার প্রায় প্রত্যেক পোস্ট নিয়েই শুরু হয় জল্পনা। বাদ যাননি এই পোস্টটিও। নুসরত ঠিক কাকে জয়ের বার্তা দিতে চেয়েছেন, সেই প্রশ্নই ঘুরছে নেটিজেনদের মুখে।

সম্প্রতি নিখিল জৈন ও নুসরত জাহানের বিবাহবিচ্ছেদের গুঞ্জন সামনে এসেছিল। কিন্তু সেই জল্পনা উড়িয়ে নুসরত জানিয়েছেন, তাঁর ও নিখিলের মধ্যে বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে কোনও কথাই হয়নি।

সরত নিখিলের সম্পর্কে ফাটল ধরেছে এই গুঞ্জন অনেকদিনের। শোনা যায়, এখন নিখিলের ফ্ল্যাটে থাকছেন না নুসরত। অন্যদিকে নতুন ছবির প্রিমিয়ার থেকে নুসরতের জন্মদিন, সব জায়গাতেই স্বমহিমায় হাজির থেকেছেন তাঁর ঘনিষ্ঠ বন্ধু অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত। রাজস্থানের আজমেঢ় শরিফে একসঙ্গে ঘুরতে যাওয়ার খবর সামনে আসতেই চর্চা শুরু হয় যশ ও নুসরতের সম্পর্ক নিয়ে। এরপর একাধিক জায়গায় একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল ২ জনকে। প্রেম করছেন যশ নুসরত? এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে মুখ খোলেননি কেউই। 

সূত্রের খবর, একপ্রকার বাধ্য হয়েই নুসরতকে বিবাহবিচ্ছেদের নোটিস পাঠিয়েছিলেন নিখিল। এমনকী, তাঁর ক্রেডিট কার্ডও রয়েছে নুসরতের কাছেই। সেটাই নিয়মিত ব্যবহার করেন নুসরত। অন্যদিকে নুসরত বলেছিলেন, ‘এমন কোনও নোটিস আমি পাইনি।‘ ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের তথ্যও ভুয়ো বলে দাবি করা হয়েছে নুসরতের তরফে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় একসঙ্গে পোস্ট নেই বহুদিন। ইনস্টাগ্রামে একে অপরকে আনফলো করেছিলেন বহুদিন আগেই। তবুও যেন নুসরত-নিখিলের পোস্ট অর্থপূর্ণ। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ছবি পোস্ট করে নিখিল লেখেন, ‘যদি নতুন কিছু শুরু করার হয়, তাহলে এখনই তার সঠিক সময়’।

 

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *